A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: count(): Parameter must be an array or an object that implements Countable

Filename: controllers/Article.php

Line Number: 51

Backtrace:

File: /home/wisdomacade/public_html/myapplication/controllers/Article.php
Line: 51
Function: _error_handler

File: /home/wisdomacade/public_html/index.php
Line: 315
Function: require_once

Witty Educational Institute Management Software - Wisdom Academy

নবীজীর সুন্নাত

নবীজীর সুন্নাত

Umarah Junnah Khan   01 January 2021   93 Last Updated : 10:15 AM 16 March 2021

আসসামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহূ..

 

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম..

 

নবীজীর সুন্নাত:

 

আল্লাহ তা’লার বাণী: আপনি বলে দিন, যদি তোমরা আল্লাহকে ভালবাস, তাহলে আমাকে অনুসরণ কর, আল্লাহ তোমাদেরকে ভালবাসবেন ও তোমাদের গুনাসমুহ মাফ করে দিবেন, এবং আল্লাহ ক্ষমাশীল, করুণাময়। (সুরা আল ইমরান-৩১)

 

আমাদের এবং সমস্ত মানুষের একটা আবেগ বা দাবি, যে আমি আল্লাহকে ভালবাসি, এই আবেগ বা দাবির সত্যতা কখন প্রমানিত হবে, তা আল্লাহ তা’লা নিজেই উক্ত আয়াতে কারিমায় বলেদিয়েছেন, যে আমাকে ভালবাসতে চাও! তাহলে খুবই সহজ; তোমরা নবীজীর অনুসরণ বা সুন্নাতের অনুসরণ কর, তাহলে আমিই তোমাদেরকে ভালবাসব।

 

সুন্নাত কি? আমরা জানি এবং বলেও থাকি যে, ইসলাম একটা পরিপূর্ণ জীবন ব্যবস্থার নাম (Islam is a complete cod of life)।

দুনিয়াতে অনেক ধরনের Life stile বা জীবন পরিচালনা পদ্ধতি আছে, যা মানব রচিত। সাধারণত মানুষ যখন কোন কাজ করে; সে তার নিজ চিন্তা, চাহিদা ও স্বার্থকে সামনে রেখে কাজটা করে থাকে। যার ফলে দেখা যায় যে, এই পদ্ধতিটা সাধারণভাবে অন্যের জীবনে পুরিপূর্ণতা আনতে পারে না, কারণ প্রত্যেকের চিন্তা, চাহিদা ও স্বার্থ ভিন্ন।

 

ইসলমী জীবন ব্যবস্থা-তথা সুন্নাত: আল্লাহ তা’লা আমাদের ‘সৃষ্টিকর্তা’ এবং তিনি আমাদের ‘পালনকর্তা’, তিনি আমাদের নাড়ীনক্ষত্র এবং রুচি-চাহিদা সবই জানেন। আল্লাহ তা’লা এই সকল বিষয় সামনে রেখে, কুরআন ও সুন্নাহর মাধ্যমে এমন এক জীবন পরিচালনা পদ্ধতি আমাদেরেকে দিয়েছেন, যা আমাদের ইহকালের জীবনকে সুখ ও সান্তিময় করবে, এবং পরকালেও সফলতা বয়ে আনবে।

 

ইসলমী জীবন ব্যবস্থাটা বা সুন্নাত কেমন: আমরা সহযেই বিষয়টা বুঝতে পারব, কারণ আমরা মা,জাতি! একটি শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর মায়ের কোল তার প্রথম শিক্ষালয়। আমরা কী শিখাই? খাওয়া, জামা, জুতা পরিধান করা, বসা, চলা, বলা, ধরা, টয়লেট করা, পারিবারিক ও সামাজিক জীবন ইত্যাদি।

বুঝার সুবিধার্থে হাদীসের কিতাবের একটি ঘটনা দিয়ে বলি, নবীজীর এক সাহাবী রাঃ একবার টয়লেটে যাচ্ছেন, দূর থেকে একজন ইয়াহুদি বিষয়টি লক্ষ করল, এবং সে দেখতে পেল যে, সাহবীর টয়লেটে যাওয়ার প্রস্তুতিটা একটু ভিন্ন! ইয়াহুদি পুরা বিষয়টি মনযোগ দিয়ে পর্যব্যক্ষণ করল, যে ঐ সাহাবী রাঃ জুতা পরলেন, মাথা ঢাকলেন, কুলুপ (টয়লেট পেপার) নিলেন, পানি নিলেন, বাম পা ব্যবহার করে প্রবেশ করলেন, ডান পা দিয়ে বের হলেন, হাত পরিষ্কার করলেন ইত্যাদি। এবার ইয়াহুদি ঐ সাহাবীর নিকট এসে জিজ্ঞাসা করলো যে, আপনি এত সুন্দরভাবে টয়লেটে যাওয়া কোথা থেকে শিখলেন? সাহাবী রাঃ উত্তর দিলেন, আমাদের নবী সঃ আমাদেরকে শিখিয়েছেন। ইয়াহুদি আশ্চর্যান্বিত হয়ে প্রশ্ন করলো তোমাদের নবী কি টয়লেট করাও শিখায়! সাহাবী রাঃ উত্তর দিলেন, শুধু টয়রেট নয়; বরং খাওয়া, জামা, জুতা পরিধান করা, বসা, চলা, বলা, ধরা, পারিবারিক ও সামাজিক জীবন ইত্যাদি সম্পূর্ণ জীবন ব্যবস্থাই তিনি আমাদেরকে শিক্ষা দিয়ে থাকেন! সুবহাণাল্লাহ! সাহাবীর এই কথা শুনে ঐ ইয়াহুদি লোকটি মুসলমান হয়ে গেলো। আল্লাহু আকবার! কতইনা সুন্দর ও পরিপূর্ণ ইসলামী জীবন! আল্লাহ তা’লা আমাদেরকে তাঁর হুকুম ও নবীজীর সুন্নাত মেনে পরিপূর্ণ ইসলামী জীবনের উপর চলার তাওফীক দান করুন আমীন।

 

সুন্নাতের অনুসরন করা কি অনেক কঠিন? না, একেবারেই সহজ! তার জন্য চাই একটা নিয়াত, ইচ্ছা বা Intension.

একটি হদীস, নবীজী এরশাদ করেন, “ অহংকারী জান্নাতে যাবে না, এক সাহবী রাঃ বললেন, ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমাদের মধ্যে একজন আছেন তিনি সুন্দর জামাকাপড় ও জুতা পরিধান করেন, তিনি কি অহংকারি? নবীজী উত্তর দিলেন, না, আল্লাহ সুন্দর, এবং তিনি সুন্দরকে পছন্দ করেন”।

উক্ত হাদীস দ্বারা আমরা বুঝতে পারলাম যে, সাধ্য ও যোগ্যতা অনুসারে সুন্দর, ভালো, দামী পোষাকাশাক পরিধান করা, ঘরবাড়ি সাজান বা ভালো খাওয়াদাওয়া করা ইসলাম পরিপন্থি নয়।

হ্যাঁ, অপচয় করা (অপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করা), সাধ্যের বাহিরে বা প্রতিযোগিতার জন্য দামী জিনিসপত্র ক্রয় করা বিলকুল হারাম।

 

করণীয়: সর্ব প্রথম নিজেরা দৈনন্দিনের প্রতিটি কাজ, হক্কানি আলেমের কাছ থেকে সুন্নাত জেনে, তার উপর আমল করতে থাকি। তারপর স্বামী-সন্তনদেরকে আসতে আসতে করে, সময় নিয়ে বুঝায় সুন্নাতের উপর আনার চেষ্টা করা। যাদের সন্তানরা ছোট, তাদেরকে ছোট বেলা থেকেই সুন্নাতের জীবন ব্যবস্থায় বড় করা। মনে রাখতে হবে সুন্নাতের উপর চলার জন্য জোরাজোরি না, বকাঝকা না, আবার ছাড়াছাড়িও না, বুঝায় সমঝায় সুন্নাত অনুসারে কাজটা করিয়ে নেয়া। অতিব জরূরী! কোন অবস্থায়ই যেন সুন্নাতের উপর বিদ্বেষপূর্ণ মনভাব না আসে এ ব্যপারে অবশ্যই লক্ষ রাখতে হবে। আমলের পাশাপাশি আল্লাহ তা’লার নিকট দোয়া করা, নিজের, পরিবার ও সকলের জন্য।

আল্লাহ তা’লা আমাদের সবাই কে সপরিবারে পরিপূর্ণ সুন্নাতের উপর চলার তাওফীক দিন। আমীন।

মুহাম্মদ খান

প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক

উইজডম একাডেমী

একটি আদর্শ ইংলিশ মিডিয়াম এবং ইসলামিক স্কুল

Last Updated : 10:15 AM 16 March 2021